গুগল কি, গুগল এর জনক কে? গুগল সম্পর্কে সকল তথ্য

গুগল কি? (what is google in bengali) আপনি ইন্টারনেট ব্যাবহার করছেন তবে গুগল এর সাথে ইতিপূর্বে আপনার কখনও পরিচয় ঘটেনি এমন কিছু হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।

বর্তমান সময়ের সাথে যদি পূর্বের দিন গুলোর কথা বলা হয়, তবে এই সময় থেকে বছর বিশ আগেও ইন্টারনেটের অস্তিত্ত ছিল।

তবে তখন মানুষ ইন্টারনেট হতে, বর্তমান সময়ে যত সুযোগ সুভিধা পাচ্ছে, তার কিছুই সেভাবে পেত না। তার কারন ইন্টারনেটে তখনও অনেক তথ্যর ভাণ্ডার ছিল, তবে গুগল ছিল না।

ভেবে দেখুন, যদি গুগল এর মত সার্চ ইঞ্জিন বর্তমানে অস্তিত্বহীন থাকতো, তবে মানুষ কে ইন্টারনেট ব্যাবহার করে কিছু সার্চ করে খুঁজে পাওয়ার জন্য কতটাই না পরিশ্রম করতে হত।

তবে আপনি এখন লক্ষ করে দেখুন, গুগল এর দৌলতে বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটে যে কোন প্রকার তথ্য খুঁজে পাওয়াটা কতটাই সহজ হয়ে গিয়েছে।

গুগল কি, গুগল এর জনক কে
গুগল সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

আর এটা শুধুমাত্র সম্ভব হয়েছে গুগল এর জন্য। তবে চলুন এখন গুগল সম্পর্কে যত তথ্য হয়তবা আপনি জানেন না তা জেনে নেওয়া যাক।

গুগল এর পূর্ণরূপ কি ?

গুগল এর পূর্ণরূপ হচ্ছে Global Organization of Oriented Group Language of Earth. অফিশিয়াল ভাবে গুগল এর কোন পূর্ণরূপ নেই। এটি একটি sentence বাক্য “googol” থেকে নেওয়া হয়েছে যার অর্থ একটি বিশাল সংখ্যা।

“googol” এই শব্দ বা বাক্য sentence এর মানে হচ্ছে ১ এর পিছনে ১০০ টি শূন্য (০).

ও Google নাম টি “googol” থেকে নেওয়ার প্রধান ও অন্যতম কারন ছিল, এই নামটি সরাসরি অনেক নিজেদের বৃহত্তমতার প্রকাশ করে।

অর্থাৎ এই নাম দ্বারাই বুঝানো যেতে পারে, তাদের সার্চ ইঞ্জিনে সংরক্ষিত তথ্যর ভাণ্ডার অনেক বেশি।

গুগল কি ?

গুগল বলতে আমরা মুলত বুঝি বর্তমান বর্তমান বিশ্বের সব থেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন কে। সার্চ ইঞ্জিন বলতে world wide web (WWW) বা ইন্টারনেটে অবস্থিত যত ওয়েব পেজ, ইমেজ, ফাইল, ভিডিও, ডকুমেন্ট, টেক্সট, ইত্যাদি সমুহ সার্চ করে খুব সহজেই খুঁজে নেওয়া বা বের করার একটি টুলস বা সফটওয়্যার।

আরও সহজ ভাবে বললে গুগল হচ্ছে বর্তমান সময়ের সব থেকে সেরা সার্চ ইঞ্জিন। একই সাথে একটি মাল্টিন্যাশনাল কম্পানি। বর্তমানে গুগলের মার্কেট শেয়ার হচ্ছে ৯২.৬ শতাংশ। এর থেকে খুব সহজেই বুঝা যায় গুগল কতটা বড় কম্পানি।

গুগল শুধু সার্চ ইঞ্জিনের মধ্যই সীমাবদ্ধ নয়, বর্তমান সময়ে গুগলের আরও অনেক পণ্য বা প্রোডাক্ট রয়েছে। যেমন,

কেবল এখানেও শেষ নয়, গুগলের রয়েছে আরও অনেক প্রকার পণ্য বা প্রোডাক্ট। বর্তমান সময় পর্যন্ত google product list যত product রয়েছে তা Wikipedia তে গিয়ে দেখে নিতে পারেন।

আমরা যে Android operating system ব্যাবহার করি, উক্ত operating system জনক ও কিন্তু গুগল। কেবল তাই নয় গুগল ২০১৬ তে mobile industry তেও এগিয়ে আসে ও একটি নতুন smartphone মার্কেটে নিয়ে আসে, গুগল তাদের smartphone এর নাম দিয়েছিল “Google pixel“.

এবং গুগলের তৈরি এই smartphone টি প্রতিনিয়ত অতান্ত জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে। এবং বর্তমান সময়ে তো Android মোবাইলের Iphone বলা হয় এই ডিভাইস Google pixel কে।

গুগল এর তৈরি এই Google pixel এতো বেশি জনপ্রিয়তা পাওয়ার কারন রয়েছে google camera. এই ক্যামেরা দিয়ে তোলা ছবির মান অন্যান্য smartphone গুলোর তুলনায় সব থেকে সেরা।

পাশাপাশি stock android এর স্বাদ ও নেওয়া যায় এই smartphone গুলো দ্বারা। বর্তমান সময়ে Google pixel বেশ কিছু মডেল পাওয়া যায়। ও এই ডিভাইস গুলোর প্রতিটা মডেল গুলোতেই গুগল নতুন কিছু করে তা মার্কেটে সবার সামনে উপস্থিত করে।

গুগলে কত সংখ্যক কর্মচারী রয়েছে ?

যখন এই আর্টিকেল টি লেখা হচ্ছে, এই সময় পর্যন্ত গুগলে ফুল টাইম কর্মরত ১০০.০০০ (এক লক্ষ) কর্মচারী রয়েছে। হ্যাঁ, কেননা গুগল অনেক বড় একটি মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানি।

বর্তমানে তাদের এতো বেশি প্রোডাক্ট বা পণ্য রয়েছে, যে গুলো নিয়মিত ভাবে আরও উন্নত ও রুচিশীল করে তোলবার লক্ষেই গুগল কাজ করে চলেছে।

এবং বুজতেই পারছেন এতো সব কিছু করতেই, গুগলের এতো বেশি কর্মচারীর প্রয়োজন পড়ে।

গুগল কিভাবে আয় করে ?

গুগল এর আয়ের একটি বৃহৎ অংশ আসে online advertising থেকে। গুগল এর যত জনপ্রিয় প্রোডাক্ট রয়েছে যেমন, youtube ও adsense. এই প্রকার প্রোডাক্ট গুলো থেকে advertising দেখানোর মাধ্যমে গুগল ইনকাম করে।

এবং এ ছাড়াও গুগলের আরও কিছু প্রোডাক্ট রয়েছে যেমন, Google cloud computing services, google smartphone ইত্যাদি প্রোডাক্ট বিক্রি করবার মাধ্যমেও গুগল ইনকাম করে।

একই সাথে এটাও জেনে রাখুন বর্তমান সময়ে গুগল প্রতিদিন প্রায় ৬ কোটি টাকার মত ইনকাম করে। যার অর্থ দাড়ায় গুগল প্রতি সেকেন্ডে ৪2,০০০ টাকা ইনকাম করে।

গুগল এতো বেশি ইনকাম করে যে তা শুনে সত্যি অবাক হবার মত।

গুগল তৈরির ইতিহাস

গুগলের উতপত্তি ১৯৯৬ সালে “BackRub” নামক একটি research project থেকে শুরু হয়েছিল। এবং এই project টি শুরু করেছিল Larry PageSergey Brin নামক দুজন স্টুডেন্ট।

Larry Page এবং Sergey Brin তখন দুজনেই (PhD students) ছিলেন ও “Stanford university” তে অধ্যায়নরত ছিলেন। এবং উক্ত সময়ে তারা দুজনে একটি search engine algorithm নিয়ে কাজ করছিলেন।

যে algorithm এর কাজ করবার ধরন হবে এমন, একটি ওয়েবপেজের ভিতরে যে “backlink” গুলো থাকবে তা দ্বারা উক্ত ওয়েবপেজ টি কতটা গুরুত্বপূর্ণ ও কি তথ্য রয়েছে তা খুব সহজে বুঝে নিতে পারবে।

ও এই ফর্মুলা ব্যাবহার করে, সার্চ ইঞ্জিনে সঠিক ফলাফল দেখানো যাবে এবং এমন পরিকল্পনা থেকেই BackRub তৈরি করা হয়েছিল।

যা পরবর্তীতে BackRub থেকে google করে দেওয়া হয়।

আনুষ্ঠানিক ভাবে Larry Page এবং Sergey Brin ১৯৯৮ সালে Google search engine এর সূচনা করে। এবং তার কিছু সময় পর google সার্চ ইঞ্জিন হিসাবে অনেক জনপ্রিয় হতে শুরু করে।

এবং তারপর বাকিটা আমরা সকলেই জানি।

তবে শুরুর দিকে সব কিছু এততা সহজ ছিলনা, একটা গুগল গুগলের নিজস্ব কোন ডোমেইন বা সার্ভার ছিল না। তখন গুগল Stanford university ওয়েবসাইট থেকে google.stanford.edu এবং z.stanford.edu ডোমেইন ব্যাবহার করতে হয়েছিল।

এবং পরবর্তীতে তারা Google.com নামের একটি ডোমেইন (15 September 1997) সালে সর্বপ্রথম রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল।

এখন আপনার মাথায় প্রস্ন আসতে পারে, যেহেতু পূর্বে google এর নাম backrub ছিল। তবে তা backrub থেকে google করার মানে কি ছিল? বা google নামের ইতিহাস টা আসলে কি?


আমি উপরেই বলেছি google নাম টি (Googol) নামক একটি sentence থেকে নেওয়া হয়েছে। যার অর্থ হচ্ছে ১ এর পিছনে ১০০ টি শূন্য। অংক বা mathematics এ এই Googol শব্দের অনেক গুরুত্ত রয়েছে।

এবং গুগল যেহেতু শুরু থেকেই চেয়ে এসেছিল তারা এমন একটি সার্চ ইঞ্জিন বানাতে চায়, যেখানে সব কিছু সম্পর্কে প্রচুর তথ্য দ্বারা সম্পূর্ণ থাকবে। তবে backrub নাম দ্বারা সরাসরি তাদের সার্চ ইঞ্জিন সম্পর্কে অততা বুঝানো সম্ভব ছিল না। যতটা google নাম দ্বারা বুঝানো যায়।

আরও সহজ ভাবে বললে google একটি (misspelling) শব্দ বা বাক্য থেকে বানানো হয়েছে, যা সরাসরি একের মাঝে অনেক কিছু রয়েছে এই বিষয় টি বুঝিয়ে থাকে।

অর্থাৎ google নামের মাঝেই বলার চেষ্টা করে, তাদের সার্চ ইঞ্জিনে প্রচুর তথ্য রয়েছে। বা gogole একটি বৃহৎ search engine ইত্যাদি।

তবে আশা করছি, গুগল নামের অর্থ ও গুগল নাম রাখার ইতিহাস টা বুজতে পেরেছেন।

গুগল এর জনক কে ?

গুগল এর জনক বা প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছে Larry Page এবং Sergey Brin. ১৯৯৬ সালে তারা California এর Stanford University তে Ph.D করা অবস্থায় তারা একটি search engine algorithm নিয়ে রিসার্চ করছিল। এবং পরবর্তীতে তারা তাদের এই project সফলতা পেয়ে যায়। ও তার থেকেই গুগল নির্মিত হয়ে যায়।

তবে যদি গুগল এর মালিক কে তা জানতে চাওয়া হয়। তবে তার উত্তর হবে গুগল এর মালিক অনেকেই।

কারন গুগল একটি publicly-traded company, তাই বলতে হবে যে বা যারাই মুলত গুগল এর (Market share) কিনবে বা কিনেছেন। উক্ত বাক্তিগনই গুগল এর মালিক।

এবং যদি গুগল এর মার্কেট শেয়ার কত লোক কিনেছেন, তা জানতে চাওয়া হয়। তবে বলতে হবে, তা হাজার হাজার লোক কিনে রেখেছেন। সুতরাং এটা বলা চলে গুগল এর মালিক তারাই, যারা গুগল এর মার্কেট শেয়ার কিনেছে।

এবং বর্তমানে অর্থাৎ আমরা যখন এই আর্টিকেল প্রকাশ করছি তখন গুগল এর CEO হিসাবে রয়েছেন “ভারতবর্ষের Sundar Pichai” তিনি ২০১৫ সালে ১০ আগস্ট গুগল এর CEO হিসাবে নিযুক্ত হন।

Conclusion

তবে আমরা আশা করি, গুগল সম্পর্কে আপনি বেশ নতুন অনেক কিছুই জানতে পেরেছেন। হ্যাঁ বর্তমানে গুগল সম্পর্কে অনেকেই জেনে থাকবেন, গুগল কি? গুগলের জনক কে? ইত্যাদি সম্পর্কে।

তবে এই আর্টিকেল আমরা চেষ্টা করেছি, যারা গুগল সম্পর্কে জানেন না, তাদের কে গুগল সম্পর্কে সব কিছু সম্পর্কে একটি ধারনা দেওয়ার। যার ফলে আপনি গুগল কি তা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিতে পারেন।

তবে আমরা আশা করছি, সম্পূর্ণ আর্টিকেল আপনার ভাল লেগেছে। ও একই সাথে আপনার এই আর্টিকেল সম্পর্কিত কিছু জানার, বা কোন মতামত থাকলে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

Hi, i'm Akash Golder, Author & founder of DotBangla. A blog that provides authentic information regarding technology, blogging, SEO, online earn money, how to guide & much more.

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *